Business is booming.

‘জনসমাগম স্থানে নারীর নিরাপত্তায় স্বয়ংক্রিয় ডিভাইস তৈরির পরিকল্পনায় সরকার

0

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ‘জনসমাগম স্থানে নারীর নিরাপত্তায়’ ডব্লিউএসপিপি ওয়েবসাইটের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রী নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে এই উদ্যোগের পরিকল্পনা জানান।

তিনি বলেন, “নারীর নিরাপত্তায় আমরা একটি ডিভাইস তৈরি করতে কিছু গবেষণা করছি। কম খরচেই এটা করা সম্ভব। অল্প কিছুদিনের মধ্যেই আমরা এটির টেস্টিংয়ে যাব।

“হাতে ব্রেসলেটের মত ডিভাইস থাকতে পারে। যদি কোথাও কোনো নারী নিজেকে ঝুঁকিপূর্ণ মনে করে, সাথে সাথে সেটা ঝাঁকি দিলে বা প্রেস করলে নিকটস্থ থানায় বার্তা চলে যেতে পারে, জোরে অ্যালার্ম বাজতে পারে। এটি কিন্তু সহজেই করা সম্ভব।“

প্রতিমন্ত্রী বলেন, “সিআরআই, ইয়াং বাংলা, ইউএনডিপি, আইসিটি ডিভিশন মিলে আমরা কাজটি করতে পারি পুলিশের সাথে।”

এছাড়া দেশব্যাপী ‘জয় অ্যাপ’ নামে একটি অত্যাধুনিক প্রযুক্তি সংবলিত অ্যাপ তৈরির পরিকল্পনা চলছে বলেও জানান প্রতিমন্ত্রী।

“এটি আমরা পুলিশের সাথে মিলে করতে চাই। যার মাধ্যমে মোবাইল ফোন ট্র্যাক করে পুরো অডিও, ছবি, ভিডিও রেকর্ড করা যাবে স্বয়ংস্ক্রিয়ভাবে; জরুরি ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায়। এটি সহজেই করা সম্ভব।”

গণপরিবহনে নারীর নিরাপত্তায় চালক, সহকারীদের ডিজিটাল আইডি সংরক্ষণ করার প্রস্তাব দিয়েছেন তিনি।

জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, “ড্রাইভিং লাইসেন্স, ন্যাশনাল আইডি দিয়ে আমরা চালক, সহকারীদের ডিজিটাল রেজিস্ট্রেশন করতে পারি। আমরা ডিজিটালি এক কোটি মানুষকে টিকার জন্য রেজিস্ট্রেশন করাতে পেরেছি, সেখানে তাদের ডিজিটালি রেকর্ড থাকবে না?

“এটি করতে পারলে সাভারের একটি গাড়িতে কোন ড্রাইভার, হেলপার ছিল; তারা কোথায় গেল সেটি সহজেই ট্র্যাক করা সম্ভব। যখন বিআরটি, পুলিশের কাছে এই ডেটাবেইজ থাকবে, তখন ১৫ থেকে ২০ লক্ষ যানবাহনে প্রতিটি যাত্রীকে নিরাপত্তায় আনার ব্যবস্থা করতে পারব। সেজন্য প্রযুক্তিগত যত সাপোর্ট লাগবে, সেটি আমরা দিব।”

Leave A Reply

Your email address will not be published.