Business is booming.

গ্রাহকদের টাকা আত্মসাতের অভিযোগে এহসান গ্রুপের চেয়ারম্যান ৭ দিনের রিমান্ডে

0

গ্রাহকদের টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ‘এহসান গ্রুপ পিরোজপুর-বাংলাদেশ’ নামের এক কোম্পানির চেয়ারম্যান রাগীব আহসানসহ তার চার ভাইয়ের সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

সোমবার দুপুরে শুনানি শেষে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক ম. মহিউদ্দিন আসামিদের রিমান্ডের আবেদন মঞ্জুর করেন।

সরকারি কৌঁসুলি খান মো: আলাউদ্দিন জানান, মাল্টিপারপাস কোম্পানি এহসান গ্রুপের পরিচালক মুফতি মাওলানা রাগীব আহসান ও তার তিন ভাইকে ৯১ কোটি ১৫ লাখ ৯৩৩ টাকার আত্মসাৎ মামলায় ৭ দিনের রিমান্ড দিয়েছেন অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত।

এদিকে জেলা আইনজীবী সমিতির কোনো অ্যাডভোকেট রাগীব আহসান ও তার তিন ভাইয়ের পক্ষে অবস্থান নেননি।

এর আগে, বৃহস্পতিবার রাতে ১৭ হাজার কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে রাগীব আহসান এবং তার সহযোগীকে গ্রেফতার করে র‌্যাব।

শুক্রবার সকালে র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার সহকারী পরিচালক এন এম ইমরান খান বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

জানা যায়, সুদবিহীন ‘শরিয়তসম্মত’ ব্যবসার নামে বিপুল সংখ্যক গ্রাহকের কাছ থেকে হাজার হাজার কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ রয়েছে এই এহসান গ্রুপের বিরুদ্ধে।

এহসান মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটি লিমিটেড, এহসান রিয়েল এস্টেট অ্যান্ড বিল্ডার্স লিমিটেডসহ কয়েকটি মাদরাসা খুলে ওই কোম্পানি ব্যবসা চালিয়ে আসছিল। তাদর বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ এনে দেশের বিভিন্ন জেলার মামলাও হয়েছে এর আগে।

রাগীব আহসান নূরে মদিনা ক্যাডেট মাদ্রাসার অধ্যক্ষ। একসময় তিনি মসজিদের ইমাম ছিলেন। বাড়ি পিরোজপুর সদরের খলিশাখালী এলাকায়।

এক সময় তিনি এমএলএম ব্যবসা শুরু করেন এবং ২০১০ সালে এহ্সান রিয়েল এস্টেট নামে একটি কোম্পানি খোলেন। পরে আরো ডজনখানেক কোম্পানি খুলে তিনি নাম দেন ‘এহসান গ্রুপ পিরোজপুর-বাংলাদেশ’।

চলতি বছরের শুরুতে গণমাধ্যমে খবর আসে, মাসে মাসে ভালো মুনাফার লোভ দেখিয়ে পিরোজপুর ও আশপাশের জেলার কযেক হাজার গ্রাহকের কাছ অর্থ সংগ্রহের পর ওই গ্রুপের কর্মকর্তারা লাপাত্তা হয়ে গেছেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.