Business is booming.

ঢাকার বারিধারার একটি বাসা থেকে মডেল ফারিয়া মাহবুব পিয়াসাকে গ্রেপ্তার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ

0

রোববার রাতে তাকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার হাফিজ আক্তার জানিয়েছেন।

তাকে গ্রেপ্তারের কারণ জানতে চাইলে গোয়েন্দা কর্মকর্তা বলেন, “ওই বাসা থেকে ইয়াবা, মদ ও সীসা পাওয়া যায়।”

বারিধারার ৯ নম্বর সড়কের একটি বাসা থেকে পিয়াসাকে গ্রেপ্তারের পর মোহাম্মদপুরের একটি বাসায় তাকে নিয়ে অভিযান শুরু করে গোয়েন্দা পুলিশ।

মোহাম্মদপুর থেকে মৌ আক্তার নামে আরেক মডেলকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে ডিএমপির যুগ্ম কমিশনার হারুন অর রশিদ।

তিনি বলেন, “তাদের বাসায় বিভিন্ন ধরনের মাদক পাওয়া গেছে। তারা ব্ল্যাকমেইলিংয়ের সংঘবদ্ধ চক্র। পিয়াসা বড় বাসা নিয়ে একাই থাকে। মৌর বাসা একই রকম। এসব বাসায় ধনী পরিবারের লোকজন এসে মাদক সেবন করে এবং ছবি তুলে ব্ল্যাকমেইল করে।”

পিয়াসা আপন জুয়েলার্সের মালিকের ছেলে সাফাত আহমেদের সাবেক স্ত্রী। ২০১৫ সালে তাদের বিয়ে হয়েছিল।

রেইনট্রি হোটেলে ধর্ষণের মামলায় ২০১৭ সালের ৬ মে সাফাত গ্রেপ্তার হওয়ার আগে ৮ মার্চ পিয়াসাকে তালাক দেন সাফাত।

সাফাত জামিন পাওয়ার পর তার বাবা দিলদার আহমেদ সেলিম সাবেক পূত্রবধূ পিয়াসার বিরুদ্ধে একটি মামলা করেন।

সেই মামলায় দিলদার অভিযোগ করের, সাফাত জামিন পাওয়ার পর পিয়াসা তার বাড়িতে গিয়ে পরিবারের সদস্যদের প্রাণনাশের হুমকি দেয় এবং ৫ কোটি টাকা দাবি করেন।

এরপর পিয়াসা সাবেক শ্বশুর দিলদারের বিরুদ্ধেও একটি মামলা করেন। তাতে তিনি সাবেক শ্বশুরের বিরুদ্ধে গর্ভপাতের চেষ্টা, নির্যাতন, হত্যার হুমকির অভিযোগ করেন।

সম্প্রতি কলেজছাত্রী মোশারাত জাহান মুনিয়া আত্মহত্যার মামলায় পুনরায় পিয়াসার নাম আসে।

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.